fbpx

পোর্ট ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড লজিস্টিক্স – সাবজেক্ট রিভিউ

BBA in PML

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে বিবিএ ইন পোর্ট ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড লজিস্টিক্স একদম ই নতুন একটি সাব্জেক্ট হলেও বাহিরের দেশে অনেক আগে থেকেই এই বিষয়ের এর উপর উচ্চশিক্ষা চালু রয়েছে।  মূলত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটিতে ২০১৫ সাল থেকে স্নাতকোত্তর এবং ২০১৮ সাল থেকে স্নাতক পর্যায়ে এই বিষয়ের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়।  পোর্ট  ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড লজিস্টিক্স বাংলাদেশে শুধু মাত্র বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটিতে পড়ার সুযোগ রয়েছে যা একে একটি স্পেশালাইসড ও গ্লোবালি ক্যারিয়ার অরিয়েন্টেড  সাব্জেক্ট এ পরিণত করেছে এবং শিপিং,লজিস্টিক এবং সাপ্লাই চেইন সেক্টরে  ক্যারিয়ার গঠনে অনন্য যোগ্যতা লাভের সুযোগ তৈরি করেছে।

বাংলাদেশের  স্থল ও সমুদ্র বন্দর পরিচালনায় বাংলাদেশের নিজস্ব মানব সম্পদ তৈরির লক্ষ্যে এই বিষয়টি চালু করা হয়। যেহেতু বঙ্গবন্ধু মেরিটাইম ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের একমাত্র স্পেশিয়ালাইজড পাবলিক ইউনিভার্সিটি তাই এই ইউনিভার্সিটির প্রতিটি অনুষদ এবং সাব্জেক্ট মেরিটাইম সেক্টর একটি নির্দিষ্ট লক্ষ্য পূরণের উদ্দেশ্যে চালু করা হয়েছে।আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের প্রায় ৯০% ই সংঘটিত হয়ে থাকে সমুদ্র পথে পণ্য পরিবহণের মাধ্যমে এবং একটি দেশের অর্থনীতির প্রধান চালিকা মাধ্যম হিসেবে গন্য হয় সেই দেশের সমুদ্র বন্দর। যেহেতু একটি দেশের আমদানি রপ্তানি পরিচালিত হয় এর স্থল ও সমুদ্র বন্দর সমূহের দ্বারা তাই বন্দরের জটিল ও সূক্ষ্ম কার্যক্রম পরিচালনায় প্রয়োজন হয় দক্ষ মানব শক্তি ও সঠিক ব্যাবস্থাপনার। আর এই দক্ষ মানব শক্তি ও সঠিক ব্যবস্থায়ক এর অভাব পূরণে বিবিএ ইন পোর্ট ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড লজিস্টিক গ্রাজুয়েটদের চাহিদা নিঃসন্দেহে সবচেয়ে বেশি থাকবে।

আর সেই প্রেক্ষিতে  বাংলাদেশে ক্রমবর্ধমান অর্থনীতি কে  ব্লু- ইকোনমি নির্ভর, শিপিং ইনডাস্ট্রির ভবিষ্যৎ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় এবং চট্টগ্রাম,মোংলা, পায়রা ও ভবিষ্যৎ বন্দর সমূহের সুষ্ঠ পরিচালনার জন্য দক্ষ মানব সম্পদ তৈরির লক্ষ্য পূরনে এই ব্যতিক্রমী বিষয়টি বাংলাদেশে প্রথমবারের মত চালু করা হয়।

পোর্ট ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড লজিস্টিক্স প্রোগ্রামটি ফেকাল্টি অফ শিপিং এডমিনিস্ট্রেশন এর আওতায়।

পোর্ট ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড লজিস্টিক্স এর মূলত দুইটি অংশ।  প্রথমটি হলো পোর্ট ম্যানেজমেন্ট যা একটি বন্দর এর সমগ্র অপারেশনাল কার্যক্রম  পরিচালনা সম্পর্কিত, এই অংশে শিক্ষার্থীরা স্থল,সমুদ্র এবং বিমান বন্দর সমূহের সমগ্র ইমপোর্ট- এক্সপোর্ট  এর অপারেশনাল কার্যক্রম এর সঠিক ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে জ্ঞান লাভ করবে এবং আরেকটি অংশ হলো লজিস্টিক যা পণ্য পরিবহন ব্যবস্থাপনা সম্পর্কিত। বৈশ্বিক অর্থনীতিতে লজিস্টিক সেক্টর অন্যতম বিস্তৃত এবং চ্যালেঞ্জিং একটি সেক্টর,  যার চাহিদা ও ব্যপ্তি সমগ্র বিশ্ব জুরে।

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে অন্য কোনো বিবিএ প্রোগ্রাম এত বিস্তৃত দুইটি সেক্টরকে একত্র করেছে বলে মনে হয় না। মজার বিষয় হলো যেহেতু পোর্ট ম্যানেজমেন্ট এবং লজিস্টিক্স উভয় বিষয়েই বাংলাদেশের অন্য কোনো ইউনিভার্সিটিতে কোনো স্নাতক ও স্নাতকোত্তর প্রোগ্রাম চালু নেই সেই প্রেক্ষিতে এই বিস্তৃত দুইটি সেক্টরে নিজেদের  সবচেয়ে শক্ত অবস্থান নিশ্চিত করতে বিবিএ ইন পোর্ট ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড লজিস্টিক্স হতে পারে একটি বুদ্ধিদিপ্ত ও ক্যারিয়ার ওরিয়েন্টেড ডিসিশন।

যেহেতু ব্যাসিক বিবিএ প্রোগ্রাম এর সাথে দুইটি বিস্তৃত সেক্টর কে একত্রিত করে বিবিএ ইন পোর্ট  ম্যানেজমেন্ট  অ্যান্ড  লজিস্টিক প্রোগ্রামটি তার দরুন দেশের যে কোনো বিবিএ প্রোগ্রাম থেকে এটি বেশ বড় কারিকুলামের একটি প্রোগ্রাম। ৪ বছরের বিবিএ ইন পোর্ট ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড প্রোগ্রামটি সর্বমোট ১৩৮+ ক্রেডিট এর।

যা যা পড়ানো হবে :

মূলত কারিকুলামটি তিনটি মূল অংশে বিভক্ত।

1.ফাউন্ডেশন (Fundation) :

এই অংশে মূলত দেশের অন্যান্য ইউনিভার্সিটির বিবিএ প্রোগ্রামে যেইসকল বেসিক কোর্স সমূহ করানো এই অংশে সেই কোর্স সমূহ রয়েছে, যেমন :
Introduction to Business, Accounting,  Management, Finance, Marketing, Organizational Behaviour, Supply Chain Management ইত্যাদি

2.কোর ( Core Courses) :

– Logistics Management
– Operations Management
– Marine Insurance
– Cargo Operation
– Fleet Management
– Port and Terminal Operation
– International Trade and Commercial Law
– Port Planning and Design
– Maritime Law and Conventions
– Shipping and Port Finance
– Marine Environment and Sustainability Management
– Air Freight Management
– Transport Security and Risk Management
– Ship Broking and Chartering Practices
– Integrated Transportation system
ইত্যাদি…

3.ডেভেলপমেন্ট (Development) :

– Presentation Skill development
– Computer Application in Business and Ports
– Site Visit ( Ports, Harbour, Inland Container Terminals) ইত্যাদি।

পোর্ট ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড লজিস্টিক্স সিট সংখ্যা এবং পরীক্ষা পদ্ধতি :

  •  সিট সংখ্যা : ৪০ টি ( ২০২১ সাল অনুযায়ী)
পরীক্ষা পদ্ধতি :
নৈর্ব্যক্তিক এবং সংক্ষিপ্ত রচনামূলক
সময়- ৯০ মিনিট এবং পূর্ণমান- ১০০
– বিষয় :
  • বাংলা
  • English
  • General Knowledge
  • Analytical Abilities
  • ICT

এর মধ্যে, বাংলা এবং ইংরেজি তে ৮;৮ করে রিটেন থাকবে।

বাংলা অংশটি বাদে সম্পূর্ণ পরীক্ষার প্রশ্ন ইংরেজিতে থাকবে।পরীক্ষায় MCQ এবং Written উভয় অংশই থাকবে

Written অংশে মূলত একটি বাংলা এবং একটি ইংরেজি পেরাগ্রাফ এর ফ্রি হ্যান্ড রাইটিং থাকবে, সাধারণ জ্ঞান এক কথায় উত্তর দিতে হবে, অপশন থাকবে না এবং বাকি সব অংশ থেকে MCQ থাকবে এবং বছর ভেদে উক্ত বিষয় সমূহের প্রশ্ন সংখ্যা পরিবর্তন হতে পারে।

Last year Admission Question of BSMRMU

প্রিপারেশন  :

MCQ :

বাংলা, ইংরেজি ও সাধারন জ্ঞান অংশের জন্য ঢাঃবি ডি- ইউনিট এর প্রপারেশন এনাফ।বাংলা ও ইংরেজি  উভয় বিষয়ের জন্যই ২য় পত্রে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। এবং ইংরেজি অংশে ভোকাবুলারিতেও গুরুত্ব দিতে হবে। এছাড়া সাধারণ জ্ঞান এর জন্য সাম্প্রতিক বিষয় ও মেরিটাইম বিষয়ক তথ্যে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে

Analytical Ability : এই অংশের জন্য বাজারে যে সকল আইকিউ এর বই পাওয়া যায় তা দেখা যেতে পারে এছাড়া সহজ কিছু পাজেল সলভিং এর প্রিপারেশন রাখা লাগবে। এছাড়া  JU এবং BUP – BBA এর Analytical অংশের বিগত কয়েক বছর এর প্রশ্ন দেখে ধারনা নেওয়া যেতে পারে।

পরীক্ষায় সাধারন ক্যালকুলেটর নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ থাকল কেননা সার্কুলার  এ ব্যসিক ম্যাথ এর কথা উল্লেখ না থাকলেও কিছু ব্যসিক ম্যাথ  বিগত বছরের প্রশ্নে দেখা গিয়েছে।

Written :

যেহেতু প্রশ্নের মধ্যেই সকল প্রশ্নের উত্তর করতে হবে তাই রিটেন অংশের জন্য যত টুকু জায়গা বরাদ্দ থাকবে তার মধ্যেই গুছিয়ে উত্তর করতে হবে।

বাংলা ও ইংরেজি অংশ থেকে দুইটি ফ্রি হ্যান্ড পেরাগ্রাফ রাইটিং থাকে রিটেন অংশে

উচ্চশিক্ষার সুযোগ :

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটি সহ বিশ্বে সর্বমোট ১২ টি মেরিটাইম ইউনিভার্সিটি রয়েছে যেখানে এই বিষয়ে উচ্চ শিক্ষার সুযোগ রয়েছে এছাড়াও বিশ্বের বেশ কিছু ইউনিভার্সিটিতে এই বিষয়ক উচ্চশিক্ষার সু্যোগ রয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটির সাথে বিশ্বের বেশ কিছু মেরিটাইম শিক্ষা প্রদানকারী  ইউনিভার্সিটির কলাবরেশন রয়েছে যেখানে উচ্চ শিক্ষার জন্য পরস্পর শিক্ষক এবং শিক্ষার্থী গ্রহণ ও প্রেরণ বিষয়ক একাত্ততা জানানো হয়েছে
ইউনিভার্সিটি সমূহ হলো :
– World Maritime University,  Sweden
– Shanghai Maritime University, China
– Dalian Maritime University, China
– Indian Maritime University
– Myanmar Maritime University
– Vietnam Maritime University
– Western Sydney University
– University of Hawaii, USA
– University of Strathclyde, UK
– University of Portsmouth, UK
এছাড়াও  অত্র ইউনিভার্সিটিতেও এই বিষয়ক Masters প্রোগ্রাম চালু রয়েছে

কর্মক্ষেত্র :

– সাধারণ বিবিএ এর সকল কর্মক্ষেত্র।
-দেশের চট্টগ্রাম,মোংলা,পায়রা বন্দর, ইনল্যান্ড কনটেইনার টারমিনাল (আইসিটি) সমূহ এবং বিদেশের পোর্ট হারবোর ও আইসিটি সমূহ।
– ইনটিগ্রেটেড  ট্রান্সপোর্ট সেক্টর।
– ইমপোর্ট এক্সপোর্ট সার্ভিস প্রোভাইডার।
– ফ্রেইট ফরওয়াড সার্ভিস কোম্পানি সমূহ।
– লজিস্টিক ও লাইনার সার্ভিস প্রোভাইডারযেমন : DHL, FedEx, USB, Maersk Liner, Hepaglloydag, Cosmo এর মত শত শত বহুজাতিক কোম্পানি এছাড়াও দেশীয় বিভিন্ন লজিস্টিক সার্ভিস প্রোভাইডার।
– দেশি বিদেশি বিভিন্ন কোম্পানির সাপ্লাই চেইন ও টেরিটরি ম্যানেজমেন্ট সেক্টর
– এছাড়াও রয়েছে ইউনিভার্সিটিতে ফ্যাকাল্টি হিসাবে যোগদানের ব্যাপক সুযোগ

খরচ :

৪ বছরে ৮ টি সেমিস্টারে সর্বমোট প্রায় ১৪০০০০ ( এক লক্ষ চল্লিশ হাজার)  টাকা

দেশের মেরিটাইম সেক্টরে নিজের অবস্থান নিশ্চিত করতে,  শিপিং ও লজিস্টিক সেক্টর এর দক্ষ মানব শক্তির অভাব পূরনে এবং একটি গ্লোবাল্লি কম্পিটিটিভ ক্যারিয়ার গঠনে বেছে নিতে পারো বিবিএ ইন পোর্ট ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড লজিস্টিক প্রোগ্রামটিকে।

Written by- Shazid Mahdi
1st batch, Port Management and Logistics, BSMRMU.

মেরিটাইমে ভর্তির আগে জেনে নিন বিস্তারিত

Full Application Process (A-Z) আবেদন করুন ঘরে বসেই

Spread the love

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button
Don`t copy text!