fbpx

আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ ও আর্মি মেডিকেল কলেজ ভর্তি সার্কুলার

মেডিকেল কলেজ

২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ ও ৫টি আর্মি মেডিকেল কলেজের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী কর্তৃক পরিচালিত সরকারি প্রতিষ্ঠান। আর্মড ফোর্সেস মেডিক্যাল কলেজ এর দুইটি ক্যাটাগরী, এএমসি (আর্মি মেডিক্যাল কোর) ক্যাডেট ও এএফএমসি ক্যাডেট এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কর্তৃক পরিচালিত বেসরকারি ০৫ (পাঁচ) টি আর্মি মেডিক্যাল কলেজসমূহে ভর্তির জন্য অনলাইনে আবেদন করতে করতে হবে।

বিস্তারিত:

  • ভর্তি আবেদন অনলাইন: শুরু ৩ মার্চ, সকাল ১০টা
  • ভর্তি আবেদন করা যাবেঃ ১২ মার্চ, রাত ৮টা পর্যন্ত
  • আবেদন ফীঃ ১০০০/-
  • লিখিত ভর্তি পরীক্ষাঃ ৮ এপ্রিল, শুক্রবার সকাল ১০টা

আবেদনের ন্যূনতম যোগ্যতাঃ

  •  এসএসসি/সমমান পাশঃ ২০১৮ অথবা ২০১৯
  •  এইচএসসি/সমমান পাশঃ ২০২০ অথবা ২০২১

আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ক্যাটাগরিতে ভর্তিচ্ছু প্রার্থী কে অবশ্যই এইচএসসি ও এসএসসি দুই পরীক্ষায় মোট জিপিএ ১০.০০ পেয়ে পাশ করতে হবে।
আর্মি মেডিকেল ক্যাটাগরিতে ভর্তিচ্ছু প্রার্থীকে অবশ্যই এইচএসসি ও এসএসসি দুই পরীক্ষায় মোট জিপিএ ন্যূনতম ৯.০০ পেয়ে পাশ করতে হবে।
তবে শুধু মাত্র উপজাতী কোটা থাকলে সেক্ষেত্রে দুই পরীক্ষায় মোট জিপিএ ন্যূনতম ৮.০০ পেয়ে পাশ করতে হবে(প্রতি পরীক্ষাতে ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ থাকতে হবে)
দুই ক্যাটাগরির ক্ষেত্রেই পরীক্ষার্থী কে এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় জীববিজ্ঞানে ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ পেতে হবে।

শারীরিক যোগ্যতাঃ

প্রার্থীকে মেডিক্যাল বোর্ড এর দ্বারা স্বাস্থ্য পরীক্ষায় উন্নীত হতে হবে ।
আর্মি মেডিক্যাল ক্যাটাগরির জন্যঃ

পুরুষ (ন্যূনতম):

উচ্চতাঃ ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি
ওজনঃ ৪৫.৪৫ কেজি
স্বাভাবিক- ৭৬ সেঃমিঃ সম্প্রসারিত-৮১ সেঃমিঃ
দৃষ্টি শক্তিঃ {± 1.5 D (spherical);
± 1.0 D (cylindrical)}

মহিলা (ন্যূনতম):

৫ ফুট ২ ইঞ্চি
৪০.৯০ কেজি
বুকের মাপঃ স্বাভাবিক- ৭১ সেঃমিঃ সম্প্রসারিত-৭৬ সেঃমিঃ
দৃষ্টি শক্তিঃ {± 1.5 D (spherical);
± 1.0 D (cylindrical)}

অন্যান্য যোগ্যতা:

প্রার্থীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে
০১ জুলাই ২০২১ তারিখে বয়স সর্বোচ্চ ২০ বছর হতে পারবে।

ভর্তি পরীক্ষা পদ্ধতিঃ

লিখিত পরীক্ষা (MCQ পদ্ধতি) = ১০০ নম্বর।

Related Articles

পরীক্ষার বিষয় ও নম্বরঃ

পদার্থবিদ্যা ৩০
রসায়নবিদ্যা ৩০
জীববিদ্যা ৩০
ইংরেজী ০৫
সাধারন জ্ঞান (বাংলাদেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতি) ০৫

লিখিত পরীক্ষায়-

  • প্রতিটি ভুল উত্তর প্রদানের জন্য ০.২৫ নম্বর কর্তন করা হবে
  • ১০০ নম্বরের মধ্যে নূন্যতম ৪০ নম্বর পেতে হবে।
  • ৪০ নম্বরের কম নম্বর প্রাপ্তরা অকৃতকার্য বলে গণ্য হবে।

শুধুমাত্র কৃতকার্য পরীক্ষার্থীদের মেধাতালিকায় অন্তর্ভূক্ত করা হবে।

প্রার্থী মূল্যায়ন পদ্ধতিঃ

এসএসসি/সমমান এবং এইচএসসি/সমমান এর জিপিএ এবং ভর্তি পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে প্রার্থীদের নিম্নলিখিত ভাবে মূল্যায়ন করা হবে :
এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-এর ১৫ গুন ৭৫ নম্বর (সর্বোচ্চ)
এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-এর ২৫ গুন ১২৫ নম্বর (সর্বোচ্চ)
MCQ পদ্ধতিতে লিখিত পরীক্ষা ১০০ নম্বর।

মোট ৩০০ নম্বর

পরীক্ষার্থী যদি পূর্বে মেডিক্যাল/ডেন্টাল পরীক্ষা দিয়ে থাকে সেক্ষত্রে তার ৫ মার্ক এবং পরীক্ষার্থি যদি মেডিক্যাল / ডেন্টালের ছাত্র বা ছাত্রী হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে তার ৭.৫ মার্ক কাটা যাবে।

 

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা এর যাবতীয় তথ্য-২০২২

Spread the love

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
Don`t copy text!